ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
537
বৃষ্টিতে ধান নিয়ে বিপাকে কৃষক
Published : Monday, 6 May, 2019 at 12:00 AM, Update: 06.05.2019 1:46:42 AM
বৃষ্টিতে ধান নিয়ে বিপাকে কৃষকইসমাইল নয়ন, ব্রাহ্মণপাড়া ॥
ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে গত দুদিন ধরে বৃষ্টি হচ্ছে কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলায়। গত শুক্রবার থেকে শনিবার পর্যন্ত ভারি বৃষ্টিপাত হয় এই উপজেলায়। রোদের দেখা না পাওয়ায় মাড়াইকৃত ও সিদ্ধ করা ধান নিয়ে বিপাকে পড়েছেন কৃষকরা। জমিতে, বাড়ির আঙ্গিনায় ও বাড়ির উঠোনে রাখা মাড়াইকৃত ধানের স্তপে ধানের চারা গজানো শুরু হয়েছে। এ ছাড়া বৈরী আবহাওয়ায় ব্যাহত হচ্ছে ধান কাটা। এদিকে বোরো আবাদকৃত জমিতে বৃষ্টির পানি জমে থাকায় পাকা ধান কাটতে না পারা ও মাড়াইকৃত ধান শুকাতে না পারায় তির শঙ্কা দেখা দিয়েছে কৃষকদের মধ্যে। ফণীর প্রভাবে টানা বৃষ্টিপাতে এবং আকাশে রোদ্র না থাকায় কৃষকের সিদ্ধ করা ধান রোদ্রে শুকাতে পারছেনা কৃষাণীরা। এতে সিদ্ধ করা ধানে পচন ধারা সম্ভবনা রয়েছে।
জানা যায়, এবার এই উপজেলায় বোরো ধানের আবাদ হয় ৮ হাজার ৫শ হেক্টর জমিতে। মোট আবাদকৃত জমির ৯০ ভাগ ধান ইতোমধ্যে কাটা হয়ে গেছে বলে দাবি করেছে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর। তবে এখনো ৩০ থেকে ৩৫ ভাগ পাকা ধান কাটার বাকি রয়েছে বলে জানিয়েছেন কৃষকরা। উপজেলার বিভিন্ন এলাকার মাঠে বেশির ভাগ ধান কাটা শেষ হলেও বৃষ্টির কারণে ধান শুকাতে পারছেন না কৃষকরা। গতকাল রবিবার উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, টানা দুদিনের বৃষ্টিপাতে ধান শুকাতে পারেননি কৃষকরা। বজ্রপাতের ভয়ে ধান কাটতে যাচ্ছেন না কৃষি শ্রমিকরা। বৈরী আবহাওয়ায় কাটা ধান মাড়াই দিতে পারছেন না কৃষকরা। মাড়াইকৃত ধান শুকাতে না পেরে ত্রিপল দিয়ে জমিতে, বাড়ির আঙ্গিনায় এবং বাড়ির উঠোনে উঁচু স্থানে মুড়িয়ে রেখেছে কৃষকরা।  ধান, যা তাপ সৃষ্টি করে চারা গজানো শুরু করেছে। এভাবে আরো দুয়েক দিন থাকলে মাড়াইকৃত ধানের ব্যাপক তি হওয়ার শঙ্কা জানিয়েছেন কৃষক। দুলালপুর গ্রামের কৃষক ময়নাল হোসেন বলেন, আমার প্রায় দেড় একর জমির ধান বাড়ির পাশে খলায় পড়ে আছে। রোদ না থাকায় শুকাতে পারছি না। আমার মতো অনেকের ধান খলায় ত্রিপল দিয়ে মুড়িয়ে রাখা হয়েছে। ধানের স্তপ থেকে ধোঁয়া বের হচ্ছে। এভাবে আর দুয়েক দিন চলতে থাকলে ধানের তি হয়ে যাবে। একই গ্রামের কৃষক শানু মিয়া বলেন, বৃষ্টি আর বজ্রপাতের কারণে ধান কাটতে যাচ্ছে না শ্রমিকরা। যে ধান কেটেছি তাও শুকাতে পারছি না। শুনছি ঘূর্ণিঝড়ের কারণে কয়েক দিন বৃষ্টি হবে। এমন হলে তো ধান নিয়ে আমরার ঘরে ফিরতে পারবো না। সব শেষে কৃষকরা জানান, আল্লাহুর রহমতে যদি আবহাওয়া দ্রুত পরিবর্তন হয়ে রোদ্রের দেখা পাওয়া যায়, তাহলে হয়ত ধান নিয়ে আমরা তেমন একটা সমস্যায় পড়তে হবে না।









© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};