ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
432
মহাসড়কের পাশে ময়লা আবর্জনায় জনদুর্ভোগ
Published : Monday, 1 July, 2019 at 12:00 AM, Update: 01.07.2019 1:43:46 AM
মহাসড়কের পাশে ময়লা আবর্জনায় জনদুর্ভোগরণবীর ঘোষ কিংকর ||
দেশের লাইফ-লাইন খ্যাত ঢাকা-চট্টগ্রাম সংলগ্ন কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলা সদর। উপজেলা সদরে আবর্জনা ফেলার কোন নির্ধারিত স্থান বা ডাস্টবিন না থাকায় প্রতিদিনের ময়লা আবর্জনার স্থান হচ্ছে মহাসড়কের পাশে। আর ময়লা-আবর্জনার স্তুপ এখন মহাসড়কের উপরে চলে আসছে। এতে একদিকে সৃষ্টি হয়েছে জনদুর্ভোগ। অপরদিকে মহাসড়ককে সৌন্দর্য বর্ধনে বাঁধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে ওই আবর্জনার স্তুপ।
ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চান্দিনা উপজেলার পালকি সিনেমা হলের সামনে থেকে সাহাপাড়া ব্রীজ পর্যন্ত প্রায় দেড় কিলোমিটার এলাকার উভয় পাশের ময়লার স্তুপ যেন বিক্ষিপ্ত ডাস্টবিনে পরিণত হয়েছে। বাজারের অধিকাংশ ময়লা-আবর্জনার স্থান হচ্ছে মহাসড়কের পাশে। মহাসড়কে চলাচলরত গাড়ি চালক ও যাত্রীরা ওই এলাকাটিতে আসলে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।
মহাসড়ক সংলগ্ন চান্দিনা ধানসিঁড়ি আবাসিক এলাকার বাসিন্দা টুটুল চৌধুরী জানান, ধানসিঁড়ি আবাসিক এলাকা থেকে মহাসড়কের প্রধান সংযোগ সড়কটি সহ যে কয়েকটি যোগাযোগের পথ রয়েছে সবগুলো পথেই চলাচলের অনুপযোগি হয়ে পড়েছে। এখানকার আবর্জনার দুর্গন্ধে আসা-যাওয়া থাক দূরের কথা বাসা বাড়িতে বসবাস করাও সম্ভব হচ্ছে না। এলাকার মানুষ দীর্ঘদিন এ সমস্যায় থাকলেও যেন দেখার কেউ নেই!
একই এলাকার বাসিন্দা ফজলুর রহমান জানান, আমাদের এখানে কোথাও স্থায়ী ডাস্টবিন নেই। চান্দিনা বাজারের অধিকাংশ ময়লা-আবর্জনা এবং আস-পাশের বাসা-বাড়ির সকল আবর্জনা ফেলার নির্ধারিত স্থান ওই মহাসড়ক! আর মহাসড়কের চান্দিনা বাস স্টেশন সংলগ্ন দক্ষিণ পাশে একদিকে ধানসিঁড়ি আবাসিক এলাকা অপরদিকে উপজেলা পরিষদের সীমানা প্রাচীর। যেখানে রয়েছে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বাস ভবন সহ স্টাফ কোয়াটার। ওই সীমানা প্রাচীর সংলগ্ন স্থানও ডাস্টবিনে পরিণত হয়েছে।
এব্যাপারে চান্দিনা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) এস.এম জাকারিয়া জানান, বিষয়টি নিয়ে আমি পৌর মেয়র ও বাজার ব্যবস্থপনা কমিটির সাথে একাধিকবার বসেছি। কিন্তু তারা ওই দায় নিতে চায় না। তারা বলছেন-‘পাশ্ববর্তী দেবিদ্বার উপজেলাধীন বাগুর এলাকার আবর্জনা এখানে ফেলছে’। তাদের ওই ভাষ্য পুরোপুরি বিশ্বাস যোগ্য নয়। তবে শীঘ্রই আমি বিষয়টি দেখবো।
চান্দিনা পৌর মেয়র মো. মফিজুল ইসলাম জানান, ডাস্টবিন নির্মাণ করতে কেউ জায়গা দিতে চায় না। সরকারি স্থানে ডাস্টবিন নির্মাণ করার চেষ্টা করলেও সেখানে আসছে স্থানীয়দের বাঁধা। যারফলে আমরা বাজার এলাকা সহ আশ-পাশের এলাকায় ড্রাম পদ্ধতির ডাস্টবিন স্থাপন করেছি। সন্ধ্যায় আমাদের গাড়িতে করে ওই বর্জ তুলে নেয়। কিন্তু ড্রাম পদ্ধতির ডাস্টবিন গুলোও যথাযথ ব্যবহার করছে না জনগণ। আমাদের পৌর এলাকার যেসব আবর্জনা আছে, সেগুলো রাতে গাড়িতে তুলে নিয়ে ডুমুরিয়া ব্রীজ সংলগ্ন  আমাদের নির্ধারিত স্থানে ফেলছি। মহাসড়কের পাশের বাসিন্দারাই মহাসড়কের পাশে আবর্জনা ফেলছে। সেজন্যও আমরা যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।









© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};