ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
82
গত বছরের ভুলগুলোর পুনরাবৃত্তি না ঘটুক
Published : Friday, 24 January, 2020 at 12:00 AM
গত বছরের ভুলগুলোর পুনরাবৃত্তি না ঘটুকআগামী ৩ ফেব্রুয়ারি শুরু হচ্ছে এসএসসি পরীক্ষা। ইতোমধ্যে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চার শতাধিক কেন্দ্রসচিবকে ডেকে পরীক্ষাসংক্রান্ত বিষয়ে মোট ২৮ দফা নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। বোর্ডের নির্দেশনা অনুযায়ী, কোনো অবস্থাতেই উপজেলা সদরের বাইরে প্রশ্নপত্রের ট্রাঙ্ক রাখা যাবে না। পরীক্ষায় অসদুপায় ঠেকাতে কেন্দ্রের প্রধান ফটকে পরীক্ষার্থীদের অবশ্যই দেহতল্লøাশি করার নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে। কেন্দ্রে প্রতি ২০ জন পরীক্ষার্থীর জন্য এক জন কক্ষ পরিদর্শক এবং প্রতিটি কক্ষে কমপক্ষে দুই জন করে দায়িত্ব পালন করবেন। নির্দেশনায় আরো বলা হয়েছে, কেন্দ্রসচিব ব্যতীত অন্য কেউ মোবাইল ফোন বা ইলেকট্রনিক ডিভাইস নিয়ে কেন্দ্রে প্রবেশ করতে পারবে না। পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট পূর্বে পরীক্ষার্থীকে অবশ্যই প্রবেশ করতে হবে। এ সময়ের পরে কোনো পরীক্ষার্থী আসলে কেন্দ্রসচিব বিশেষ বিবেচনায় রেজিস্ট্রার খাতায় রোল নম্বর ও অন্যান্য তথ্য লিপিবদ্ধ করে কেন্দ্রে প্রবেশের অনুমতি দান করতে পারবেন। ১৪৪ ধারা জারিকৃত স্থানগুলিতে লাল পতাকা টানাতে হবে। একই সঙ্গে, প্রশ্নপত্র সংরক্ষণ ও বিতরণের নিরাপত্তা বিষয়ে অনেকগুলি নির্দেশনা তো রয়েছে। উপরন্তু, দুর্নীতি ঠেকাতে পয়লা ফেব্রুয়ারি হতে পরীক্ষা চলাকালীন পুরো সময় কোচিং সেন্টারগুলি বন্ধ রাখতেও নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
দুর্ভাগ্যজনকভাবে, বিগত কয়েক বছর প্রশ্নপত্র ফাঁস এবং সে ফাঁসকৃত প্রশ্নপত্রেই পরীক্ষা গ্রহণ অনেকটা রেওয়াজে পরিণত হয়েছিল। কিন্তু দীর্ঘদিনের সে হতাশা কাটিয়ে গত বছর প্রশ্নপত্র ফাঁসের তেমন জোরালো অভিযোগ না উঠলেও অনিয়মিতদের প্রশ্নে নিয়মিতদের পরীক্ষা, কেন্দ্রে কম প্রশ্ন পাঠাবার কারণে প্রশ্নপত্র ফটোকপি করে পরীক্ষা গ্রহণ, ট্রেজারিতে প্রশ্নপত্র রেখে পাশের কেন্দ্র হতে প্রশ্নপত্র এনে পরীক্ষা গ্রহণ, এমনকি নির্ধারিত সময়ের পরে পরীক্ষা শুরু করার মতো নানা অনিয়মের ঘটনা ঘটেছিল।
আশার কথা, প্রশ্নপত্র ফাঁস বন্ধে মন্ত্রণালয় ভালো ভূমিকা নিয়েছে। আমরা আশা করব, এবারও তার ব্যত্যয় ঘটবে না। অনেক সময় দেখা যায়, এ সকল অনিয়ম, ত্রুটি ও দুর্নীতির সঙ্গে যারা জড়িত, তারা অনায়াসেই পার পেয়ে যায়। কিন্তু সরকার প্রশ্নপত্র ফাঁসের মতো গুরুতর অপরাধের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের ধরতে পারলে অনিয়ম, ত্রুটির সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের আইনের আওতায় আনা কঠিন নয়। আন্তরিকতার সঙ্গে সবাই নিজের উপর অর্পিত দায়িত্ব পালন করলে ও অপরাধের সঙ্গে জড়িতদের আইনের আওতায় আনাসহ জবাবদিহি নিশ্চিত করা গেলে প্রশ্নপত্র ফাঁস ছাড়াও শিক্ষা খাতের অন্যান্য অনিয়ম-দুর্নীতির লাগাম টেনে ধরা অসম্ভব হবে না। মূলত জবাবদিহি না থাকা এবং বিচারহীনতার সংস্কৃতির কারণে সকল পর্যায়ে শিক্ষার মানের অবনতি ঘটছে। শিক্ষার হার বাড়লেও মানের অবনতি ঘটে চলেছে। গত ১০ বছরে শিক্ষার্থীদের সংখ্যা অনেক বেড়েছে। এবার মানের দিকে নজর দিতে হবে। আর মান নিশ্চিত করতে প্রথমেই দায়িত্বে অবহেলা, অব্যবস্থাপনা ও দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের শাস্তির আওতায় আনতে হবে। এবারের এসএসসি পরীক্ষায় গত বছরের ভুলগুলোর পুনরাবৃত্তি ঘটবে না-এই প্রত্যাশাটুকু আমরা করতে চাই।






© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};