ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
563
অবৈধ ইটভাটা অপসারনে কঠোর প্রশাসন
Published : Thursday, 30 January, 2020 at 12:00 AM, Update: 30.01.2020 2:26:35 AM
অবৈধ ইটভাটা অপসারনে কঠোর প্রশাসনতানভীর দিপু:
কুমিল্লায় অবৈধ ইটভাটা অপসারনে কঠোর ভূমিকা নিয়েছে প্রশাসন। সদর উপজেলায় ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে সনাতন পদ্ধতিতে চলতে থাকা একটি ইটভাটা। এছাড়া শর্তাবলী না মানায় দেবিদ্বারে ৮ টি ইটভাটাকে নির্দেশনা প্রদান করে চিঠি দিয়েছে পরিবেশ অধিদপ্তর। ইতিমধ্যে নির্দেশনার প্রেক্ষিতে এসব ইটভাটা কর্তৃপক্ষকে চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিবেশ অধিপ্তরে শুনানির জন্য তলব করেছে সংশ্লিষ্ট দপ্তর।
গতকাল বুধবার সকালে কুমিল্লার সদর উপজেলার কালখারপাড় এলাকায় একটি ইটভাটা ভেঙ্গে দেয় প্রশাসন। জেলাপ্রশাসনের ম্যাজিষ্ট্রেটের উপস্থিতিতে পরিবেশ অধিদপ্তর, ফায়ার সার্ভিস ও র‌্যাবের একটি যৌথ টিম এনএসবি ব্রিকস নামে ওই ইটভাটাটিকে ভেঙ্গে দেয়। সনাতন পদ্ধতির সকল ধরনের ইটভাটার কার্যক্রম ২০১১সাল থেকে স্থগিত করে সরকার। সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে কুমিল্লা সদরের কালখারপাড়ের এ ইটভাটাটি কোন প্রকার অনুমতি ছাড়াই কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিলো। বারবার নোটিশ দেয়ার পরও পরিবেশবান্ধব ও বৈধ শর্তাবলী ব্যবস্থা গ্রহন না করায় বুধবার সকালে ফায়ার সার্ভিসের সহায়তায় এক্সেভেটর দিয়ে ইটভাটাটিকে গুড়িয়ে দেয়া হয়। নিভিয়ে দেয়া হয় ভাটার সবক’টি চুল্লী। পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা জানান, নিয়ম না মেনে দীর্ঘদিন যাবত এই ভাটাটি ইট বানিয়ে ও বিক্রি করে আসছিলো। তাই ভাটাটিকে সম্পূর্ন ভাবে বন্ধ করা হয়েছে।
এর আগে, দেবিদ্বার উপজেলার ৮ টি ইটভাটাকে পরিবেশ ছাড়পত্র নবায়ন করার জন্য নির্দেশনা প্রদান করে পরিবেশ অধিদপ্তর। মেসার্স সনি ব্রিকস, মেসার্স রাসেল ব্রিকস, মেসার্স মনির এন্ড ব্রাদার্স, মেসার্সবন্ধু ইউনিটি অটো ব্রিকস লিঃ, মেসার্স কে এম ব্রিকস, মেসার্স ব্রাদার্স ব্রিকস, মেসার্স খাজা ব্রিকস ও মেসার্স এম বি এস ব্রিকস নামের এই ইটভাটাগুলো আবাসিক এলাকা ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে নির্ধারিত দূরত্বে না থাকায়- তাদেরকে পরিবেশ ছাড়পত্র নবায়নের জন্য চিঠি পাঠানো হয়। কুমিল্লার পরিবেশ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, এসব প্রতিষ্ঠানকে শুনানিতে অংশ নিতে পরিবেশ অধিপ্তরের চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ে  তলব করা হয়েছে।
প্রসঙ্গত, কুমিল্লা জেলা ইট প্রস্তুতকারী সমিতির তথ্যানুযায়ী, কুমিল্লায় ইটভাটার সংখ্যা সাড়ে ৩০০। আর জেলা প্রশাসনের তথ্যমতে, কুমিল্লায় মোট ইটভাটা ৩১৯টি। ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন নিয়ন্ত্রণ আইন, ২০১৩ অনুযায়ী, আবাসিক এলাকা, সিটি করপোরেশন, পৌরসভা, বাণিজ্যিক এলাকা, কৃষিজমিসহ পরিবেশের ক্ষতি হয় এমন এলাকায় ইটভাটা স্থাপন করা যাবে না। আর শ্রম আইন, ২০০৬-তে বলা হয়েছে, শ্রমিকদের স্বাস্থ্যহানি করে এমন কোনো পরিবেশে কাজ করানো যাবে না।
লাইসেন্স নেয়ার সময় ইটভাটাতে পতিত জমির মাটি ব্যবহারের কথা উল্লেখ থাকলেও কুমিল্লাতে যে পরিমান মাটি ইটভাটার জন্য প্রয়োজন সে পরিমান পতিত জামি নেই। যে কারনে কুমিল্লার ইটভাটাগুলোতে ফসলি জমির উপরিভাগের উর্বর মাটি এবং নদীর বাঁধের মাটি ব্যবহার করে ইট বানানো হয় বলে অভিযোগ রয়েছে।  এছাড়া সিটি করপোরেশন, পৌরসভা, বাণিজ্যিক এলাকা, কৃষিজমি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কাছাকাছি অনেক ইটভাটা জানা গেছে।
কুমিল্লা পরিবেশ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক শারমিন আরা কলি জানান, সনাতন পদ্ধতিতে পরিবেশের জন্য ক্ষতিকারক উপায়ে ইটপ্রস্তুতকারী ভাটাগুলো বন্ধ করা হয়েছে। এছাড়া যে সব ইটভাটা আইন মানছে না তাদেরকে পর্যবেক্ষন করে শর্তাবলী মানার নির্দেশনা প্রদান করা হচ্ছে। আইন অমান্য করে যারা ভাটা চালায় তাদের বিরুদ্ধে অব্যাহত অভিযানের অংশ হিসেবে এনএসবি ব্রিকস বন্ধ করে দেয়া হলো। দেবিদ্বারের ৮ টি ভাটাকে চিঠি দেয়া হয়েছে।  আমরা এই অভিযান চালিয়ে যাবো। আশা করি কুমিল্লার সব ক’টি ইটভাটাকে পরিবেশ আইনের আওতায় আনতে পারবো।








সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};