ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
64
অর্থমন্ত্রীর রয়েছে প্রতিবন্ধকতা
Published : Sunday, 9 February, 2020 at 12:00 AM
অর্থমন্ত্রীর রয়েছে প্রতিবন্ধকতানিঃসন্দেহে দেশের বর্তমান অর্থমন্ত্রী একজন উচ্চশিক্ষিত এবং যোগ্য মানুষ। অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার সদিচ্ছাতেও কোনো কমতি নেই তার। তবে বর্তমান অর্থনৈতিক পরিবেশ তার জন্য কতটা অনুকূল তা ভেবে দেখার বিষয়। তার উপর দায়িত্ব পড়েছে সমস্ত মেধা, অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে দেশের অর্থনীতিকে উজ্জীবিত করার। তিনি ভালো করে জানেন, ইতিবাচক ফলাফল আনতে পারলে প্রশংসা যেমন তার, তেমনি সফল হতে না পারলে সমস্ত দায় গিয়েও পড়বে তার এবং সরকারপ্রধানের উপর। কিন্তু দেশের অর্থনীতির বাস্তব চিত্র হতে এটা ফুটে উঠছে যে, তিনি যেভাবে যা করতে চাচ্ছেন সেভাবে করতে পারছেন না পারিপার্শ্বিক নানামুখী প্রতিবন্ধকতার জন্য। সে হতাশা তার বক্তব্যেও ফুটে উঠেছে। যেমন বৃহস্পতিবার একটি ব্যাংকের ব্যবস্থাপকদের বার্ষিক কনফারেন্সে তিনি বলেছেন, ‘খারাপ কর্মকর্তাদের জন্য যখন একটি ব্যাংক ক্ষতিগ্রস্ত হয়, তখন সমগ্র ব্যাংক খাতকেই ভুক্তভোগী হতে হয়। ব্যাংকের বিতরণ করা ঋণখেলাপি হওয়ার কারণে সংসদে আমাকে গালি শুনতে হয়।’ মন্ত্রী ব্যাংক সুদের হার সিঙ্গেল ডিজিটে নামিয়ে আনতে চেষ্টা করছেন অনেকদিন ধরে। কিন্তু পেরে উঠছেন না। বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ব্যাংকগুলি এতকাল ধরে যে চড়া সুদ আরোপ করেছে তা পরিশোধকরত ব্যবসায়কে সামনে এগিয়ে নেয়া কোনোভাবেই একজন ব্যবসায়ীর দ্বারা সম্ভব নয়। বিশ্বের উন্নত কোনো দেশেই এতটা চড়া সুদের কথা কেউ কল্পনাও করতে পারে না। যুক্তরাষ্ট্রের, যুক্তরাজ্যের কোথাও বাণিজ্যিক বা যে কোনো ধরনের ব্যাংকঋণ সুদের হার ৪.৯ শতাংশের বেশি নয়। তাও অতিরিক্ত বলে অভিযোগ আছে। সেখানে অর্থমন্ত্রী চেষ্টা করেও আমাদের দেশে সুদের হার সিঙ্গেল ডিজিটে, অর্থাৎ ৯ শতাংশে নামাতে পারছেন না। তার উপর রয়েছে কম্পাউন্ড ইন্টারেস্ট বা চক্রবৃদ্ধি সুদের অভিশাপ। ফলে কিছু সত্যিকার ব্যবসায়ীও খেলাপিতে পরিণত হতে বাধ্য হয়ে থাকেন।

এই যে অর্থমন্ত্রী যেভাবে চেয়েছেন তা পারছেন না, এর পিছনে আরো বেশ কিছু কারণ বিদ্যমান। সরকারের বাইরে, এমনকি সরকারের অভ্যন্তর হতেও এমন কিছু চাপ এসে পড়ে যার কারণে সুস্থ পরিকল্পনা গ্রহণের মধ্য দিয়ে দায়িত্ব সম্পন্ন করা মুশকিল হয়ে পড়ে। এটা কেবল বাংলাদেশেই নয়, তৃতীয় বিশ্বের উন্নয়নশীল দেশগুলোর একটি টিপিক্যাল সমস্যা। দেখা যায়, এমন কিছু ব্যক্তি থাকেন যারা ঋণখেলাপি হয়েও, বিভিন্ন খাত হতে লুটপাট করেও মন্ত্রণালয়ের চাইতেও বেশি প্রভাবশালী হয়ে থাকেন। মন্ত্রীর ইচ্ছা থাকলেও অ্যাকশন নেবার উপায় থাকে না।

এ ধরনের সমস্যা হতে একক ব্যক্তির বের হয়ে আসা সম্ভব নয়। প্রয়োজন গোটা রাজনৈতিক সংস্কৃতি পাল্টানো এবং দেশের অর্থনীতিকে গুটিকয়েক ব্যক্তির রাজনৈতিক প্রভাব হতে মুক্ত করা। অর্থাৎ একজন যোগ্য ও সক্ষম মানুষ ইচ্ছা করলেই যে সফল হবেন এমন কোনো কথা নেই। প্রয়োজন একটি অনুকূল আবহ তৈরি হওয়া। তবে এত কিছুর পরও আমরা আশা করি, মন্ত্রী তার যোগ্যতা ও সক্ষমতার সর্বোচ্চ ব্যবহার করে এ সকল প্রতিবন্ধকতা হতে উত্তরণ ঘটাবেন।

 





© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};