ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
612
রেইনকোটই পুলিশের পিপিই
১৪ হাজার ৩ শ ৭২ জনের প্রবাসীর বাড়ি গিয়েছে পুলিশ
Published : Tuesday, 7 April, 2020 at 12:00 AM, Update: 07.04.2020 1:17:28 AM

রেইনকোটই পুলিশের পিপিইতানভীর দিপু ||
করোনা সংক্রমনের পর থেকে স্বাস্থ্য বিভাগের পর সবচেয়ে বেশি তৎপর পুলিশ। কুমিল্লায় প্রবাসীদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে পুলিশের ভূমিকা ছিলো অনস্বীকার্য। নিজের কোন ধরনের নিরাপত্তার কথা চিন্তা না করেই শুধু মাস্ক পরেই খুঁজে বের করেছেন প্রবাসীদের বাড়ি। কোভিক-১৯ সংক্রমনের পর বিভিন্ন দেশ থেকে আসা প্রবাসীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে পাহাড়া দিয়ে নিশ্চিত করেছেন তাদের কোয়ারেন্টাইন। আর সে সপুলিশ সদস্যের জন্য আপাতত সর্বোচ্চ নিরাপত্তা হিসেবে রয়েছে নিজেদের বানানো রেইনকোট। এছাড়া প্রত্যেক পুলিশ সদস্যদের দেয়া হয়েছে মাস্ক ও হ্যান্ড সেনিটাইজার।
কুমিল্লা জেলা পলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম জানান, ১ থেকে ১৬ তারিখের মধ্যে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে আসা ১৪ হাজার ১ শত ৮৩ জনের তথ্য পায় পুলিশ। কিন্তু পুলিশের কাছে তাদের সম্পর্কে যে তথ্য ছিলো তা ছিলো অসম্পূর্ন। পাসপোর্ট অফিস থেকে ঠিকানা নেয়া হয় ৮ হাজার ৬ শত ৬৩ জনের। সব মিলিয়ে- গতকাল পর্যন্ত পুলিশ তথ্য পেয়েছে কুমিল্লা জেলার ১৫ হাজার ২ শত ৫৭ জনের।  এর মধ্যে  ১৪ হাজার ৩ শ ৭২ জনের বাড়ি বাড়ি গিয়েছে পুলিশ। এছাড়া ৮ শত ৮৫ জনের ঠিকানা পাওয়া যায়নি বলে জানান পুলিশ।
করোনার সংক্রমন ঠেকাতে শুরু থেকে পুলিশের যে নিরলস প্রচেষ্টা রয়েছে। তা এখনো অব্যাহত রয়েছে। বিভিন্ন মোবাইল কোর্টে সহায়তা করা, কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে এলাকায় এলাকায় টহল নিয়মিত জোরদার করা হযেছে। এছাড়া কুমিল্লার প্রতিটি থানা অঞ্চলকে ৫ ভগে ভাগ করে সচেতনতা কার্যক্রম চালাচেছ। কুমিল্লা শহরসহ বিভিন্ন গ্রামে গঞ্জে ন্যায্যমূল্যের বাজারও পরিচালনা করছে তারা।
সামনে করোনার সংক্রমনের হার বাড়লে এই পুলিশ সদস্যরাই মানুষের সবচেয়ে কাছে থাকবে বলে জানিয়ে কুমিল্লার পুলিশ সুপার জানান, আমরা আপাতত সবাইকে নিজস্ব তত্বাবধানে রেইনকোট বানিয়ে দিয়েছি। সরকারি ভাবে পিপিই  এর নির্দেশনা আসলে তা দেয়া হবে। সবাইকে মাস্ক, গ্লাভস ও হ্যান্ডসেনিটাইজার দেয়া হয়েছে। আশার কথা হলো কুমিল্লা পুলিশ এত বিশাল সংখ্যক প্রবাসীদের নিয়ে কাজ করেছে তাদের মধ্যে কেউ এখনো সংক্রমিত হয়নি।
কুমিল্লা ছত্রখিল ফাঁড়ির ইনচার্জ শাহীন কাদির জানান, কেন্দ্রিয়ভাবে আমাদের যা দেয়া হয়েছে সে সুরক্ষা নিয়েই আমরা মাঠে থাকবো। মানুষের পাশে থাকবো। এই রেইন কোন পরেই আমরা এখনো জনবহুল এলাকাগুলোতে মানুষকে কোয়ারেন্টাইনে উদ্বুদ্ধ করে আসছি।
কুমিল্লা জেলা পুলিশ করোনা সংক্রমনের পর থেকে জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগতে সর্বোচ্চ সহযোগিতা করে আসছে। জেলা পুলিশের তথ্য অনুযায়ী. প্রায় আড়াই হাজার পুলিশ সদস্য কুমিল্লাবাসীকে সেবা দিয়ে আসছে।
 







© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};