ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
Count
1137
তিন গরু দিয়ে শুরু করা খামারে কোটি টাকার স্বপ্ন ইব্রাহীমের
Published : Wednesday, 8 July, 2020 at 12:00 AM, Update: 08.07.2020 12:12:08 AM
তিন গরু দিয়ে শুরু করা খামারে কোটি টাকার স্বপ্ন ইব্রাহীমেরশাহীন আলম, দেবিদ্বার|||
ইব্রাহীম খলিল দেশের মাটিতে তিনি এখন গরু পালনের তরুণ এক উদ্যোক্তা। আজ থেকে দুই বছর আগে নিজের জমানো কিছু টাকা দিয়ে মাত্র ৩টি গাভি দিয়ে শুরু করেছিলেন ছোট পরিসরের একটি খামার। পরে খামার করার প্রবল ইচ্ছাশক্তিতে স্ত্রী শারমিন আক্তারের উৎসাহ উদ্দীপনায় এগিয়ে যেতে থাকেন ইব্রাহীম। শ^শুরের চাকরির পেনশনের ৩০ লক্ষ টাকা দিয়ে কেনেন দেশী ও উন্নত প্রজাতিসহ বিভিন্ন জাতের ছোট বড় ২৩টি গরু। আজ তার খামারে দেশী ও উন্নত প্রজাতিসহ বিভিন্ন জাতের প্রায় ৭৫টি গরু রয়েছে। আসছে কোরবানীর ঈদে প্রায় দেড় কোটি টাকার গরু বিক্রির লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে পুরোদমে চলছে গরুর পরিচর্চা। খামারী ইব্রাহিম গরু বাজারে বিক্রির পাশাপাশি অনলাইনেও গরু বিক্রির জন্য বিভিন্ন ডেইরি বিক্রয় কেন্দ্রে আবেদন করেছেন। তাদের কাছে গরুর ছবি পাঠিয়ে মূল্য নির্ধারণ করে দিচ্ছেন। ঈদের আগে গরু ক্রয়কারীর বাড়িতেও পৌছে দেওয়ার সুবিধা রেখেছেন তিনি।     
কুমিল্লার দেবিদ্বারে সুলতানপুর ইউনিয়নের রাধানগর গ্রামে সুমাইয়া অ্যান্ড খালিদ এগ্রো ফার্ম নামে নিজের উদ্যোগে তিনি গড়ে তুলেছেন ডেইরি ফার্ম। কুমিল্লা ইপিজেটে একটি কোম্পানীতে চাকরির পাশাপাশি তিনি এ খামারটি দেখাশুনা করেন। তার পুরো খামারটি সিসি ক্যামরা দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। তিনি অফিসে বসেও খামারের দেখাশুনা করেন। এছ্ড়াাও তার খামারে ৪৫ হাজার টাকা বেতন দিয়ে তিনজন শ্রমিক রেখেছেন যারা নিয়মিত গরুর খাবারের দেওয়ার পাশপাশি বর্জ্য-আবর্জনা পরিষ্কার করেন। গরু চিকিৎসা ও পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য একজন চিকিৎসকও নিয়মিত আসেন এ খামারে। তাঁর খামারে শাহীওয়াল ক্রস ও শাহীওয়াল জাতের দু’টি গরু রয়েছে যার প্রতিটির বাজার মূল্য ৭/৮ লক্ষ টাকা করে। এছাড়া এ খামারে ৭০/৮০ হাজার টাকা থেকে শুরু করে ছয় লক্ষ টাকার মূল্যের গরু রয়েছে। ইব্রাহীম খলিল গাভী পালনের পাশাপাশি তার ফার্মের পার্শ্ববর্তী স্থানে বায়োগ্যাস প্লান্ট নির্মাণ করেছেন। এ গ্যাস দিয়ে নিজ পরিবারের রান্নার কাজে ব্যবহার করা ছাড়াও পার্শ্ববর্তী আরো ৫টি পরিবারকে মাসিক এক হাজার টাকা হারে গ্যাস সরবরাহ করছেন। এছাড়াও তার খামার থেকে প্রতিদিন গড়ে ১০০ লিটার দুধ উৎপাদন হয়। পাইকারি দামে প্রতি লিটার ৫০ টাকা এবং খুচরা দামে প্রতি লিটার ৫৫ থেকে ৬০ টাকা দরে বিক্রি করেন। ১২ শতাংশ জায়গায় তার খামারটি গড়ে তোলা হয়েছে জানিয়ে ইব্রাহীম বলেন, ১৮০ শতাংশ জমিতে তিনি গরুর জন্য জামার্নি জাতের ঘাষ চাষ করেন। এছাড়াও গরুর খাবারের তিনি যোগ করেন খইল, ভূষি, ইডিমেস, চিটাগুড়, খর ইত্যাদি।
খামারী ইব্রাহীম আরও জানান, তিনটি গরু দিয়ে খামার শুরুর স্বপ্নটা এখন কোটি টাকারও বেশি স্বপ্নতে গিয়ে ঠেকেছে। বর্তমানে তার খামারে ৮টি দেশী, ৮টি ইন্ডিয়ান, ৪টি অস্টিলিয়ান, শাহীওয়াল ক্রস ও দেশি ষাড় ২টি করে ৪টিসহ আরও বিভিন্ন জাতের ছোট বড় প্রায় ৭৫ টি গরু রয়েছে। যার বাজার মূল্য বর্তমানে দেড় কোটি টাকারও বেশি। গত বছর কোরবানীর ঈদে তিনি খামার থেকে মোটা তাজা ৭৮টি, ১১টি গাভী, ১৩টি বাছুর বিক্রি করেছেন প্রায় পৌনে এক কোটি টাকা। ইব্রাহীম আরও বলেন, খামারের শুরু ছিল পদে পদে নানা প্রতিকুলতা। তবে ধর্য্য আর বুদ্ধিমত্তা দিয়ে সব বাঁধা মোকাবিলা করেই সামনে এগিয়েছি। সফল জীবন গড়ার এ লড়াইয়ে পাশে ছিলেন আমার স্ত্রী শারমিন আক্তার এবং শ^শুর (অবসর প্রাপ্ত শিক্ষক) মো. শহীদুর রহমান ভূঁইয়া।    
খামারী ইব্রাহীম খলিল জানান, ২০১৭ সালের ৪ নভেম্বর একটি সফল খামারী হওয়ার স্বপ্ন দেখে রাজশাহীর সিটি হাট থেকে ২৩টি কিনেছিলাম। পরে গরু বোঝাই ট্রাকটি যখন ভোরে নারায়নগঞ্জের রুপগঞ্জে এসে পৌছে আমাদেরকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ট্রাকবোঝাই আমার ২৩টি গরু ছিনতাই করা হয়। তখন সাংবাদিকদের সংবাদ প্রকাশের পর তাদের সহযোগিতায় ডিবি পুলিশ আমার ২৩টি গরু উদ্ধার করে দেন। গরুগুলো ফেরত পেয়ে আবার শুরু করি ডেইরি ফার্মের কাজ। এরপর আমাকে আর পিছনে তাকাতে হয়নি।  
ইব্রাহীম খলিল খামারের সম্ভাবনার পাশাপাশি কিছু সমস্যার কথাও জানিয়েছেন এ প্রতিবেদকের কাছে। তিনি বলেন, বর্তমানে করোনায় বিপর্যস্ত সারাদেশ। মানুষের আয়-ইনকামের পথ অনেকটাই বন্ধ। আমি খুব শংকিত গরুর বাজার দর নিয়ে। এবারের গরু বাজারে যদি ধস নামে তাহলে আমার অনেক টাকার লোকসানও গুনতে হবে। ব্যাংক বা সরকারীভাবে কোন সহায়তা পেলে তার খামারের পরিধি আরও বড় করতে চান।
ইউএনও রাকিব হাসান বলেন, দেশে তরুণদের মধ্যে এসব খামারীরা স্বপ্ন জাগিয়েছেন। তারা এখন চাকরি পিছনে না ঘুরে নিজেই স্বাবলম্বী হওয়ার জন্য এগিয়ে যাচ্ছেন। ইব্রাহীম একজন সফল খামারী, তার খামারের পরিধি আরও বাড়াতে উপজেলা প্রশাসন যেকোন সহযোগিতা করবে।










© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected]gmail.com,  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft
document.write(unescape("%3Cscript src=%27http://s10.histats.com/js15.js%27 type=%27text/javascript%27%3E%3C/script%3E")); try {Histats.start(1,3445398,4,306,118,60,"00010101"); Histats.track_hits();} catch(err){};