ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
দেবিদ্বারে চেয়ারম্যান-মেম্বার গ্রুপে দফায় দফায় সংঘর্ষ
Published : Thursday, 9 July, 2020 at 12:00 AM, Count : 193
শাহীন আলম, দেবিদ্বার ||
কুমিল্লার দেবিদ্বারে চেয়ারম্যান ও মেম্বার দুই  গ্রুপে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। বুধবার দুপুর সাড়ে ১২ টায় ফতেহাবাদ ইউনিয়নের সাইচাপাড়া বাজারে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে উভয়ের পক্ষে অন্তত ৮জন আহত হয়েছে। আহতরা হলো, কামাল হোসেন, রাশেদ মিয়া, কাউছার মিয়া, সোলেমান, কাইয়ুম , মমিন মিয়া, সুমন। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। এ সময় কুমিল্লার কাগজ দেবিদ্বার  উপজেলা প্রতিনিধির ক্যামরা ছিনিয়ে নিয়ে ভাঙচুর করার ঘটনাও ঘটেছে।
ঘটনার বিবরণে জানা যায়, উপজেলার ফতেহাবাদ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. আবদুস সালাম ভূঁইয়া ও একই ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. এরশাদের মধ্যে ত্রাণ সমবন্টন নিয়ে পূর্ব থেকে বিরোধ চলে আসছিলো। ওই বিরোধকে কেন্দ্র করে গত মঙ্গলবার রাতে চেয়ারম্যান আবদুস সালাম গ্রুপের লোকজন ইউপি সদস্য মো. এরশাদকে জাফরগঞ্জ এলাকায় মারধর করেন। মারধরে এ ঘটনায় ওই দিন রাতে এরশাদ মেম্বার দেবিদ্বার থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। পরে বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায়  ইউপি সদস্য এরশাদের লোকজন চেয়ারম্যান আবদুস সালামের এক লোকের বাড়িঘর ভাঙচুর করেন। ভাঙচুরের ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে চেয়ারম্যান সালামের লোকজন রড, লাঠি, বাঁশ, ছেনি-দা নিয়ে সাইচাপাড়া বাজারে অবস্থান নিলে পূর্বে বাজারে অবস্থানরত ইউপি সদস্য এরশাদের লোকজনের মধ্যে কথাকাটির এক পর্যায়ে দফায় দফায় সংঘর্ষ শুরু হয়। খবর পেয়ে দৈনিক কুমিল্লা কাগজ উপজেলা প্রতিনিধি ঘটনাস্থলে পৌছে সংঘর্ষের ছবি তুলায় তার ক্যামেরা ছিনিয়ে ভাঙচুর এবং অশ্লীলভাষায় গালাগাল ও শারীরিক লাঞ্ছিত করা হয়।
এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য এরশাদ বলেন, আমার ওয়ার্ডে ত্রাণের বন্টন চাওয়ায় আমাকে মারধর করেছে চেয়ারম্যানের লোকজন। পরে সকালে আবার আমার বড় ভাইসহ আমার লোকজনের ওপর হামলা করে চেয়ারম্যানের লোকজন । আমি থানায় অভিযোগ দায়ের করেছি।
ইউপি চেয়ারম্যান আবদুস সালাম জানান, সংঘর্ষের ঘটনায় আমার চার পাঁচজন গুরুতর আহত হয়েছে। তারা আমার সুনাম ক্ষুন্ন করার অপচেষ্টা করছে। আমার লোকজন কাউকে মারধর করেনি। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। দেবিদ্বার থানার ওসি মো. জহিরুল আনোয়ার জানান, উভয় গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় শুনে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। সংঘর্ষের ঘটনায় দোষীদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা হবে। স্থানীয় এক সাংবাদিকের ক্যামরা ভাঙচুর ও তাকে শারীরিক  লাঞ্ছিত করার ঘটনাও ঘটেছে।






« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft