ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্য যোগাযোগ কুমিল্লার কাগজ পরিবার
প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ
Published : Friday, 18 September, 2020 at 12:00 AM, Count : 132
দৈনিক কুমিল্লার কাগজ’র ১৬ সেপ্টেম্বর চতুর্থ পৃষ্ঠায় ‘প্রতারক পুত্রের বিরুদ্ধে বৃদ্ধ পিতার সংবাদ সম্মেলন’ এবং জাতীয় দৈনিক সমকাল’র ১৫ পৃষ্ঠায় ’ছেলের অত্যাচারে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন বাবা’ শিরোনামসহ কয়েকটি অনলাইন গণমাধ্যমে আমার বিরুদ্ধে সাংবাদিকদের মিথ্যা বানোয়াট তথ্য সরবরাহ করে আমার ভাইয়েরা বাবাকে ভুল বুঝিয়ে দেবিদ্বারে একটি সংবাদ সম্মেলন করেছে। যা পরবর্তীতে আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। ওই সংবাদ সম্মেলনে আমার বিরুদ্ধে যা উপস্থাপন করা হয়েছে এবং পরে সংবাদ মাধ্যমে যা এসেছে আমি তার তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাই। সংবাদে আমাকে নিয়ে যা লেখা হয়েছে তা বিন্দুমাত্রও সত্য নয়। যদি সত্য হয় আমার ওপর যে বিচার ধার্য করা হয় আমি তা মাথা পেতে নেব।
প্রকৃতপক্ষে আমার ভাইয়েরা আমার বাবা ডা.সৈয়দুর রহমানকে বাদী করে আমার বিরুদ্ধে আমার প্রতিবন্ধি ভাই সুমনকে হত্যার অভিযোগে মামলা দায়ের করেছে অথচ সুমনের লাশ যখন উদ্ধার করা হয় আমি তখন আমার ছোট ভাই শেখ মোহনের সাবেক স্ত্রীর করা  মিথ্যা একটি মামলায় জেলে ছিলাম। জেলে থাকাবস্থায় কি করে আমি আমার ভাইকে হত্যা করি ? তারা কুমিল্লা পুলিশ সুপার মহোদয়ের নিকটও আমার বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। মূলত তারা তাদের অপকর্ম আড়াল করে আমাকে হয়রানি নাজেহাল ও আমার অর্থ নষ্ট করছে।
আমি যদি বাবার প্রতি কোন অন্যায় অত্যাচার জুলুম করে থাকি তাহলে সমাজের অনেক গন্যমান্য ব্যক্তি রয়েছে তারা দেখতেন বা শুনতেন। এ নিয়ে তো এলাকার মানুষের কাছে বিচার সালিশ চাইতে পারতেন কিন্তু চাননি কেন? আমি সাংবাদিকদের সরেজমিনে গিয়ে মূল সত্যটা অনুসন্ধান করার জন্য অনুরোধ করছি। আমার বৃদ্ধ বাবাকে গত ৭ মাস যাবৎ শেখ মোহন একটি অজ্ঞাত স্থানে রেখে তাকে ব্যবহার করে বিভিন্ন ষড়যন্ত্র করছে। আর তাকে সহযোগিতা করছে জাকির, শহিদুল হক, শাহাদত হোসেন।  আমার প্রতিবন্ধি ভাই সুমনের যাবতীয় অর্থ সম্পদ স্ত্রী সন্তানকে বুঝিয়ে না দিয়ে তা ভোগ দখল করার প্রতিবাদ করায় তারা আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা প্রপাগান্ডা ছড়ায়। তারা উল্টো আমাকে ও আমার স্ত্রীকে মারধর করে আমার সম্পত্তি দখল করার চেষ্টা করে। এছাড়াও মোহন ও জাকির আমার ফুফুর ২৪ শতক জায়গা বিক্রি করে ৬ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়। আমি এর প্রতিবাদ করায় তারা আমার বিরুদ্ধে নেমেছে। আমি আমার পিতাকে স্ব-সম্মানে বাড়ি নিয়ে যেতে চাই এবং আমার বাবার শেষ সময়টায় আমি আমার কাছে রাখতে চাই। ভবিষ্যতে প্রকৃত ঘটনা জেনে সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ করার জন্য সাংবাদিকদের প্রতি বিনীত অনুরোধ করছি।   
নিবেদক
মো.দেলোয়ার হোসেন
পিতা মো. সৈয়দুর রহমান
সাং বাইড়া, বাঙ্গরা বাজার থানা, কুমিল্লা।  


 


« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
কুমিল্লার কাগজ ২০০৪ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আবুল কাশেম হৃদয় (আবুল কাশেম হৃদয়)
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন, কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ।
ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ই মেইল: [email protected], [email protected],  Developed by i2soft
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আবুল কাশেম হৃদয়
নির্বাহী সম্পাদক: হুমায়ূন কবীর জীবন
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ১২২ অধ্যক্ষ আবদুর রউফ ভবন
কুমিল্লা টাউন হল গেইটের বিপরিতে, কান্দিরপাড়, কুমিল্লা ৩৫০০। বাংলাদেশ। বাংলাদেশ। ফোন +৮৮ ০৮১ ৬৭১১৯, +৮৮০ ১৭১১ ১৫২ ৪৪৩
ইমেইল : [email protected] Developed by i2soft